রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
আন্তর্জাতিক, প্রধান সংবাদ সিরিয়ায় উদ্বাস্তু শিবিরে সরকারি বাহিনীর হামলায় নিহত ১৫।

সিরিয়ায় উদ্বাস্তু শিবিরে সরকারি বাহিনীর হামলায় নিহত ১৫।


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ১১/২১/২০১৯ , ৮:৩৭ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আন্তর্জাতিক,প্রধান সংবাদ


সিরিয়ায় উদ্বাস্তু শিবিরে সরকারি বাহিনীর হামলায় নিহত ১৫
অনলাইন ডেস্ক ১৮:৫৯, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত একটি তাবু। ছবি: আল জাজিরা

সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ইদলিব প্রদেশের একটি উদ্বাস্তু শিবিরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে সিরিয়ান সরকারি বাহিনী । এতে ছয় জন শিশু সহ অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছেন। প্রতিবেশী প্রদেশ আলেপ্পোর গ্রামাঞ্চল থেকে ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে সরকারি বাহিনী। খবর এপি ও সিএনএন’র।

ইদলিবে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবক দল হোয়াইট হেলমেট জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ওই শরণার্থী শিবিরটিতে হামলা চালানো হয়। এসময় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয় এবং সেখানকার অনেক তাঁবু নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়। তাছাড়া শরণার্থী শিবিরের অনেক তাঁবু আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এই হামলায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

এক প্রত্যক্ষদর্শী সিএনএনকে বলেন, ‘হামলার পরপরই আমি সেখানে অসংখ্য মরদেহ পড়ে থাকতে দেখি। মরদেহগুলোর বেশিরভাগই ছিল শিশুর। এসময় আতঙ্কিত হাজারো মানুষ তাঁবু ছেড়ে দৌড়ে পালান।’

আরও পড়ুন: সারাদেশে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি জোরদার করেছে টিসিবি

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, সরকারি বাহিনীর ওই হামলায় একটি ‘মা ও শিশু’ হাসপাতালও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসময় হাসপাতালের বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হন।

সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশটি তুরস্কের সঙ্গে লাগোয়া একটি সীমান্ত এলাকা। এলাকাটি এখনও তাহরির আল-শাম’র নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এলাকাটিতে বর্তমানে ৩০ লাখেরও বেশি শরণার্থী ও উদ্বাস্তুর বসবাস। সম্প্রতি তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যস্থতায় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এ অঞ্চলটির জন্য একটি যুদ্ধবিরতি চুক্তি করা হলেও সেটি কার্যকর হয়নি।

56 total views, 1 views today

Comments

comments

Close