সাংবাদিকদের জন্য অনুসরনীয় আচরণবিধি ঃ (প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক প্রনীত)

সাংবাদিকদের জন্য অনুসরনীয় আচরণবিধি ঃ
(প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক প্রনীত)

### আজকের পর্ব (১২)

সাংবাদিকতায় কিছু শর্ত ও নিয়ম আচরন মেনেচলা সকল সাংবাদিকের উচিৎ,
যেমনঃ ১) জাতিসত্তা বিনাশ এবং দেশের স্বাধীনতা,সার্বভৌমত্ব, রাষ্ট্রীয় অখন্ডতা ও সংবিধান বিরোধী বা পরিপন্থী কোন সংবাদ অথবা ভাষ্য প্রকাশ না করা।
২)মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও অর্জনকে সমুন্নত রাখা এবং এর বিরুদ্ধে প্রচারনা থেকে বিরত থাকা।
৩)জনগনকে আকর্ষণ করে অথবা তাদের উপর প্রভাব ফেলে এমন বিষয়ে জনগনকে অবহিত রাখা একজন সাংবাদিকের দায়িত্ব। জনগনের তথা সংবাদপএের পাঠকগনের ব্যক্তিগত অধিকার ও সংবেদনশীলতার প্রতি পূর্ন সম্মানবোধসহ সংবাদ ও সংবাদভাষ্য রচনা ও প্রকাশ করা।
৪) সংবাদপএ ও সাংবসদিকের প্রাপ্ত তথ্যাবলি সত্যতা ও নির্ভুলতা নিশ্চিত করা।
৫) বিশ্বাসযোগ্য সূএ থেকে প্রপ্ত তথ্য কোনরুপ শাস্তির ঝুঁকি ছাড়াই জনস্বার্থে প্রকাশ করা।এ ধরনের জনস্বার্থ প্রকাশিত সংবাদ যদি সৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে থাকে এবং প্রাপ্ত তথ্য যৌক্তিকভাবে বিশ্বাসযোগ্য বিবেচিত হয়,তবে এ ধরনের প্রকাশিত সংবাদ থেকে উদ্ভুতি প্রতিকূল পরিনতি থেকে সাংবাদিককে রেহাই দেয়া।
৬)গুজব ওঅসমর্থিত প্রতিবেদন প্রকাশের পূর্বে সেগুলোকে চিন্হিত করা এবং যদি এসব প্রকাশ করা অনুচিত বিবেচিত হয় তবে সেগুলো প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকা।
৭)যে সকল সংবাদের বিষয়বস্তু অসাধু এবং ভিক্তিহীন অথবা যেগুলোর প্রকাশনায় বিশ্বাসভংগের আশংঙ্কা আছে সে সকল সংবাদ প্রকাশ না করা।
৮)সংবাদপএ ও সাংবাদিক বিতর্কিত বিষয়ে নিজস্ব মতামত জোরালোভাবে ব্যক্ত করার অধিকার রাখেন।কিন্তু এরুপ করতে গিয়ে যেন খেয়াল থাকে।

ক) সত্য ঘটনা এবং মতামতকে পরিছম্নভাবে প্রকাশ না করা।
খ) পাঠককে প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে কোন ঘটনাকে বিকৃত না করা।
গ)মূল্যভাষ্যে অথবা শিরোনামে কোন সংবাদকে বিকৃত না করা বা অসাধুভাবে চিন্হিত না করা।
ঘ)মূল সংবাদের উপর মতামত পরিচ্ছন্নভাবে তুলে ধরা।।
৯)কুৎসামূলক বা জনস্বার্থ পরিপন্থী না হলে,বাহ্যত ব্যক্তি বিশেষের স্বার্থবিরোধী হলেও যথাযথ কতৃপক্ষ স্বাক্ষরিত যে কোন বিজ্ঞাপন সংবাদপএে প্রকাশের অধিকার সম্পাদকের আছে।কিন্তু এরুপ বিজ্ঞাপনের প্রতিবাদ করা হলে সম্পাদককে তা বিনা খরচে মুদ্রনের ব্যবস্হা করা।
১০)ব্যক্তি অথবা সম্প্রদায়বিশেষ সম্পর্ক তাদের বর্ন, গোএ,জাতীয়তা,ধর্ম অথবা দেশগত বিষয় নিয়ে অবজ্ঞা বা মর্যাদাহানিকর বিষয় প্রকাশনা করা।জাতীয় ঐক্য সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে অসাম্প্রদায়িকতাকে কঠোর ভাবে নিরুৎসাহিত করা।
১১)ব্যক্তিবিশেষ,সংস্হা,
প্রতিষ্ঠান অথবা কোন জনগোষ্ঠী বা বিশেষ শ্রেনীর মানুষ সম্পর্কে তাদের স্বার্থ ও সুনামের ক্ষতিকর কোন কিছু যদি সংবাদপএ প্রকাশ করে তবে পক্ষপাতহীন ও সততার সাথে সংবাদপএ বা সাংবাদিকের উচিত ক্ষতিকর ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান /সংস্হাকে দ্রুত এবং সংগত সময়ের মধ্যে প্রতিবাদ বা উত্তর দেয়ার সুযোগ প্রদান।
১২)প্রকাশিত সংবাদ যদি ক্ষতিকর হয় বা বস্তুনিষ্ঠ না হয় তবে তা অবিলম্বে প্রত্যাহার,সংশোধন বা ব্যাখ্যা করা এবং ক্ষেএবিশেষে ক্ষমা প্রার্থনা করা।
১৩) জনগনকে আকর্ষণ করে অথচ জনস্বাস্থ্য পরিপন্থী চাঞ্চল্যকর মুখরোচক কাহিনীর মাধ্যমে পএিকা কাটতির স্বার্থে রুচিহীন ও অশালীন সংবাদ ও অনুরুপ ছবি পরিবেশন না করা।
১৪) অপরাধ ও দুর্নীতি প্রতিরোধের লক্ষ্যে সংবাদপএের যুক্তিসঙ্গত পন্হা অবলম্বন করা।
১৫)অন্যান্য গনমাধ্যমের তুলনায় সংবাদপএের প্রভাবের ব্যাপ্তি ও স্হায়িত্ব তুলনামূলকভাবে বেশি।এ কারনে যে সাংবাদিক সংবাদপএের জন্য লিখবেন তার সূএের বিশ্বাসযোগ্যতা ও সংবাদের সত্যতা সম্পর্কে বিশেষভাবে সাবধান থাকা এবং ঝুঁকি এড়ানোর জন্য সূএসমূহ সংরক্ষন করা।
১৬)কোন অপরাধের ঘটনা বিচারাধীন থাকাকালীন সব পর্যায়ে তার খবর ছাপানো এবং মামলা বিষয়ক প্রকৃত চিএ উদঘাটনের জন্য আদালতের চূড়ান্ত রায় প্রকাশ করা সংবাদপএের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।তবে বিচারাধীন মামলার রায়কে প্রভাবিত করতে পারে,এমন কোন মন্তব্য বা মতামত প্রকাশ থেকে চূড়ান্ত ঘোষনার আগ পর্যন্ত সাংবাদিককে বিরত থাকা।
১৭)সংবাদপএে প্রকাশিত প্রতিবেদনের সাথে প্রত্যাক্ষভাবে সম্পর্কিত পক্ষ বা পক্ষসমূহের প্রতিবাদ সংবাদপএটিতে সমগুরুত্ব দিয়ে দ্রুত ছাপানো এবং সম্পাদক প্রতিবাদলিপির সম্পাদনাকালে এর চরিএ পরিবর্তন না করা।
১৮) সম্পাদকীয়ের কোন ভুল তথ্যে দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষ যদি প্রতিবাদ করে, তবে সম্পদকের নৈতিক দায়িত্ব হচ্ছে একই পাতায় ভুল সংশোধন করে দুঃখ প্রকাশ করা।
১৯)বিদ্বেষপূর্ণ খবর প্রকাশ না করা।
২০)সম্পাদক কতৃক সংবাদপএের সকল প্রকাশনার পরিপূর্ণ দায়িত্ব স্বীকার করা।
২১)কোন দুর্নীতি বা কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে আর্থিক বা অন্য কোন অভিযোগ সংক্রান্ত প্রতিবেদন তৈরি করার ক্ষেএে প্রতিবেদকের উচিত ঘটনা সত্যতা সম্পর্কে সাধ্যমত নিশ্চিত হওয়া এবং প্রতিবেদককে অবশ্যই খবরের ন্যায্যতা প্রতিপন্ন করার মত যথেষ্ট তথ্য যোগাড় করা।
২২) প্রতিবাদ হয়নি এমন দায়িত্বহীন প্রকাশনা খবরের উৎস হতে পারে,তবে পুনঃ মুদ্রণ করা হয়েছে নিছক এই অজুহাতে কোন সাংবাদিক কোন সাংবাদিকের কোন খবর সম্পর্কে দায়িত্ব না এড়ানো।
২৩) সমাজের নৈতিক মূল্যবোধের অধঃপতন তুলে ধরা সাংবাদিকের দায়িত্ব,তবে নারী – পুরুষঘটিত অথবা কোন নারী সংক্রান্ত প্রতিবেদন/ ছবি প্রকাশের ক্ষেএে একজন সাংবাদিককে অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বন করা।
২৪)কোন ব্যক্তি সংবাদপএ, গনমাধ্যম, প্রতিষ্ঠান সাংবাদিকরুপে চাকরি গ্রহনকালে আচরণবিধির পরিশিষ্ট উল্লেখিত শপথনামা ‘ক’ সম্পাদকের পাঠ ও স্বাক্ষর দান করতে বাধ্য থাকা।
২৫)প্রেস কাউন্সিল এ্যাক্ট,১৯৭৪ – এর ১১( বি )ধারা অনুযায়ী সংবাদপএ প্রকাশক আচরণবিধির পরিশিষ্ট উল্লেখিত শপথনামা ‘খ’ পাঠ ও স্বাক্ষর করতে বাধ্য থাকা।

### একজন সফল সাংবাদিককে অবশ্যই মনে রাখতে হব,
সাংবাদিকতা হচ্ছে এক প্রকার শ্রম। যেখানে সাংবাদিক নামের শ্রমিকের হাতের নাড়াচাড়ায় যে চিএ ফুটে উঠে,তাতে দর্শক মাএই মনোমুগ্ধকর!!

“আরও থাকছে পরের পর্বে”

লেখকঃ সৈয়দ শফিকুর রহমান পলাশ
সভাপতি
মিরপুর প্রেসক্লাব
ঢাকা ১২১৬.

     More News Of This Category

Our Like Page