Logo
আজঃ Sunday ২৬ June ২০২২
শিরোনাম
পবিপ্রবিতে বিশ্ব সমুদ্র দিবস পালিত অপহরণের ৩ মাস ২০ দিন পর মরদেহ উদ্ধার, মেম্বারসহ গ্রেফতার ৩ চির যৌবনপ্রাপ্ত হওয়ার নেশায় বৃদ্ধাকে হত্যা করে পুরুষাঙ্গ, অন্ডকোষ, চোখ তুলে নেওয়া খুনি ও হুকুমদাতা গ্রেফতার পবিপ্রবিতে বরিশাল বিভাগীয় রোভার মেট ওয়ার্কশপে’র উদ্বোধন ঝিনাইদহে মিছিলে গুলি ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আ’লীগের বিরাট প্রতিবাদ সমাবেশ কেশবপুরে ধুমপান ও তামাকজাত দ্রব্য নিয়ত্রণ বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত চৌগাছায় পুলিশের হাতে ২'শত ফেনসিডিলসহ ২ জন গ্রেফতার দলের সিদ্ধান্ত অমান্য পদ পদবি গোপন করে পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি নেতারা ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক নওগাঁয় চাঁদার টাকা না পেয়ে চুরি আঘাত করে হত্যা চেষ্টা বাবা-ছেলেকে, পলাতক আসামী!

ভূয়া পুলিশ পরিচয়ে, পিতামাতা হারা এক মাস্টার্স পড়ুয়া মেয়ের সাথে প্রতারণা,

প্রকাশিত:Saturday ১৯ February ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ১১৩জন দেখেছেন
শেখ মোস্তফা কামাল(যশোর জেলা প্রতিনিধি)

Image


স্ত্রীর মর্যাদা ফিরে পেতে পিতামাতা হারা এক অসহায় মাস্টার্স পড়ুয়া ছাত্রী আদালত, প্রশাসন ও মানবাধিকার সংস্থার কার্যালয় সহ বিভিন্ন মানুষের দ্বারে-দ্বারে ঘুরছেন। শুধু তাই নয়, অভিভাবকহীন  অসহায় মেয়েটি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে ন্যায় বিচারের দাবীতে তাদের বিরুদ্ধে আদালত ও থানায়  মামলা দায়ের করায় ছেলের পরিবারের লোকজনের হুমকি-ধামকিতে বর্তমানে মেয়েটি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। ছেলের পিতা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আবু সাঈদ ও তার মা কোন মতেই পুত্রবধূকে মেনে নিতে রাজি হচ্ছেনা। মানবতা আজ কোথায়? নারী কি শুধুই পুরুষের ভোগ বিলাসিতার পাত্র। জানা গেছে, যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার বড়েঙ্গা গ্রামের আবু সাঈদ এর ছোট ছেলে মোস্তফা মহিদের সঙ্গে পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানার মৃত ফারুক হোসেন এর বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মেয়ের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয়। সেই সুবাদে একে অপরের ফেসবুক ফ্রেন্ড হন তারা। পরিচয়ের এক পর্যায়ে মহিদ তার ফেসবুকের ম্যাসেঞ্জারে পুলিশের পোশাক পরিধানের ছবি পাঠিয়ে নিজেকে পুলিশ সদস্য হিসেবে ওই বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রীর কাছে পরিচয় দেয়। এরপর থেকে তাদের ভেতর ফোনে এবং ফেসবুকের মাধ্যমে বন্ধুত্ব আরো গাড়ো হতে থাকে। এক পর্যায় ওই ছাত্রী তার ও পরিবারের অবস্থার কথা তাকে জানান যে, খুব ছোট বেলায় আমার পিতা মারা গেছে, মা থাকতেও নেই। আমি বর্তমানে আমার দাদি ও চাচাদের আশ্রিত হিসেবে এ পর্যন্ত লেখা-পড়া চালিয়ে এসেছি। বিভিন্ন সময় আলাপ চারিতার একে-অপরের জানাশুনার মাধ্যমে তাদের মধ্যে গভীর সম্পর্কের সৃষ্টি হয়। উক্ত সম্পর্কের জের ধরে মহিদ তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। প্রথম পর্যায়ে তার প্রস্তাবে রাজি না হলেও পরিবারের সম্মতিতে বিয়ের প্রস্তাব দিলে ওই ছাত্রী পরিবারের সম্মতিতে রাজি হন। এরপর মহিদ তড়িঘড়ি করে তাকে বিয়ের দিনক্ষণ জানিয়ে দেয়। ওই সময় মহিদের আসল রূপ বুঝতে পারিনি সে। মহিদের কথা মতো গত বছরের ২৭ জানুয়ারী আশুলিয়া থানার বাইপাইল নামাবাজার আ: সালামের বাড়িতে মেয়ের পক্ষীয় ওই এলাকার কিছু লোকজনকে দাওয়াত করেন। এরপর বরপক্ষ মহিদ ও তার আপন বড় ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন কিছু সংখ্যাক লোকজনকে সঙ্গে নিয়ে সেই বাড়ীতে হাজির হন। ওই সময় উভয় পক্ষের ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে কোন বিবাহ রেজিষ্ট্রার ছাড়ায় শুধুমাত্র বর পক্ষের সরবরাহকৃত কাগজে স্বাক্ষর করে স্থানীয় মৌলভী দিয়ে তাদের বিয়ে পড়িয়ে বিবাহের কাজ সম্পন্নের প্রস্তাব দেয়। ওইসময় মেয়ে রাজি না হলে, মহিদ ও তার আপন বড় ভাই এবং তাদের সঙ্গীয়রা তাকে বুঝায় যে, প্রথম পর্যায় কাগজে স্বাক্ষর করে বিয়েটা হয়ে গেলেই পরবর্তী সময় সুযোগে বিবাহ রেজিষ্ট্রারের মাধ্যমে বিবাহ রেজিষ্ট্রি করে নেব। মেয়েটি যেহেতু অভিভাকহীন তাই পরবর্তীতে তার পক্ষীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের পরবর্তীতে উপস্থিত করতে পারবো কিনা সেই শঙ্কায় ওই দিনই কাগজে মেয়ের স্বাক্ষর নিয়ে বরপক্ষ বিবাহের কাজ সম্পন্ন করে। এরপর থেকে মেয়ের ভারাটিয়া বাড়ীতে ও মহিদের পিতার নামীয় গাজীপুর জেলার কাশিমপুর থানার চক্রবর্তি টেকের ২নং ওয়ার্ডের ডি-২ ফ্লাটের ৪র্থ তলায় স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বেশ কিছুদিন বসবাস করতে থাকে। স্বামী-স্ত্রীর মেলামেশায় একপর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এরপর গর্ভধারণের বিষয়টি মহিদকে জানালে সে মেয়েটিকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং গত ১৯ আগষ্ট মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ঔষধ সেবন করিয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দেয়। যার কারণে মেয়ের শরীর থেকে রক্তক্ষরণ হতে থাকলে গত বছরের ৩০ আগষ্ট হাবিব হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করেন। এরপর মেয়েটি সুস্থ হয়ে মহিদকে রেজিস্ট্রি কাবিনের কপি দেওয়ার জন্য তাগিদ দিলে সে মেয়েকে বলে আরে কাবিন দিয়ে কি হবে, আমাদের দু'জনের ভালোবাসাটাই হলো বড় কথা। তারপর কাবিনের কথা বলতে গেলেই বিভিন্ন সময় ছল-চাতুরী করে এড়িয়ে যেতে থাকে। বিষয়টি মেয়ের সন্দেহের সৃষ্টি হলে পরে জানতে পারে সেদিনের কাগজে সাক্ষর করা কাগজটি ভূয়া ও কোন কাবিননামা হয় নাই। এরপরও সে মেয়েটিকে মিথ্যা বানোয়াট আশ্বস্ত করে তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চাইলে মেয়েটি বাধা প্রদান করে এবং বলে তুমি আমাকে মিথ্যা বিয়ের নাটক করে কেন আমার জীবনটা নষ্ট করতে চাও। আমাকে পুনরায় বিয়ের রেজিস্ট্রার ও কাবিননামা করে তুমি আমার সাথে মেলামেশা করো। ওইসময় সে মেয়ের কথার কোন কর্নপাত না করে জোরপূর্বক তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে আবারও ধর্ষণ করে। কোন উপায় না পেয়ে কান্নাকাটি ও ডাকচিৎকার শুরু করলে সে দ্রুত সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে মহিদের পরিবারের লোকজনদের কাছে অবগত করলে তারা উল্টো মেয়েকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এবং এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন হুমকি ধামকিসহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। পরবর্তীতে মেয়েটি মহিদের পুলিশের চাকরির বিষয় খোজখবর নিয়ে জানতে পারে, সে পুলিশের চাকরি করে না, সে পুলিশের পোশাক পরিধান করে ছবি তুলে ও মিথ্যা বানোয়াট পুলিশের চাকরির কথা বলে তার সাথে প্রতারণা করেছে। এরপর ওই এলাকা ছেড়ে মেয়েটিকে রেখে পালিয়ে আসে মোহিদ। এরপর তার সাথে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে পরিশেষে তার স্ত্রীর অধিকার নিয়ে মহিদের গ্রামের বাড়িতে কেশবপুরের বড়েঙ্গা গ্রামে আসে। সেখানে একদিন অবস্থান করার পর মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়েন, তখন মহিদ ও তার মা তাকে অসুস্থ অবস্থায় কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর ওইদিন রাতেই পৌরশহরের একটি হোটেল থেকে খাওয়া দাওয়া করে তাকে সাথে করে নিয়ে তাদের কেশবপুরের বাড়িতে নিয়ে যান। পরের দিন মহিদের পিতামাতা স্ত্রীর মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ও মেয়ের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে তাকে ঢাকাতে পাঠিয়ে দেয়।

পরবর্তীতে ছেলের পিতা ঢাকায় গিয়ে মেয়ের পরিবারের লোকজনের কাছে বিয়ের কথা অস্বীকার করেন এবং মেয়েটি খুবই খারাপ ও দুশ্চরিত্র স্বভাবের বলে এমন মন্তব্য করেন। পরিশেষে মেয়ে কোন উপয়ান্তর না-পেয়ে ভূয়া পুলিশ সদস্য পরিচয়দিয়ে নারীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও অবৈধ গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে প্রতারক মহিদ ও তার পিতা এবং আপন বড় ভাইয়ের নাম উল্লেখ করে গত বছরের ৩০ নভেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতে মামলা করেন। পরবর্তীতে ওই মামলাটি রেকর্ড ও তদন্তের জন্য ঢাকার আশুলিয়া থানা পুলিশকে নির্দেশনা প্রদান করে আদালত। তারই প্রেক্ষিতে গত ২৮ডিসেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলাটি গ্রহণ করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। যার মামলা নম্বর-৫৫(১২)২১। এরপর কেশবপুরের বড়েঙ্গা গ্রামের বাড়ি থেকে মোস্তফা মহিদকে (২১) আটক করে পুলিশ। বর্তমানে মহিদ জেলহাজতে রয়েছে।


এ ঘটনায় ছেলের পিতা ও পরিবারের লোকজন মামলা তুলে নিতে এবং মহিদের জীবন থেকে সরিয়ে দিতে বিভিন্ন হুমকী-ধামকী অব্যাহত রেখেছে। এ ঘটনায় মেয়েটি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে চলতি বছরের গত ২২ জানুয়ারী আশুলিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। যার নং-১৬৪৬।এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রী বলেন, মাত্র দেড় বছর বয়সে আমার পিতাকে হারিয়েছি, এমনকি মাকেও হারিয়ে বহুত কষ্টে বিশ্ববিদ্যালয় মাস্টার্স ফাইনাল ইয়ার পর্যন্ত লেখাপড়া চালিয়ে এসেছি। আমার আপন বলতে তেমন কেও নেই। সেই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে মহিদ আমার জীবনটাকে এলোমেলো ও জীবনের সব স্বপ্ন ভেঙ্গে তছনছ করে দিয়েছে। মহিদের প্রতারণার ফাঁদে পড়ে আমার জীবনের মহা মূল্যবান সম্পদ হারিয়ে বর্তমানে আমি খুবই অসহায় ও মানবেতর জীবনযাপন করছি। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করায় মহিদের পিতামাতা ও তাদের বিভিন্ন লোকজন দ্বারা জীবনন্যাশের হুমকিতে আমি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগিতেছি। সে কারণে ন্যায় বিচারের দাবীতে আদালত, প্রশাসন ও বিভিন্ন সংস্থার কার্যালয়ের দ্বারে দ্বারে ঘুরছি। মানবতা আজ কোথায়? নারীরা কি শুধুই পুরুষের ভোগ বিলাসিতার পাত্র। বর্তমানে আমার শ্বশুর আবু সাঈদ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত থাকার সুবাদে তার অবৈধভাবে উপার্জনের টাকার গরমে আমাকে পুত্রবধু হিসেবে মেনে নিতে কোন মতেই রাজি হচ্ছেনা। এহেন কর্মকান্ডের ন্যায় বিচারের দাবীতে আমি প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

বিয়ের ব্যাপারে মহিদের আপন বড় ভাই আবদুল্লা আল মামুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমিসহ আমাদের পক্ষের ও মেয়ের পক্ষের লোকজনের উপস্থিতিতে লিখিত একটি কাগজে সহি স্বাক্ষর ও মৌলভী দ্বারা তাদের বিবাহের কাজ সম্পন্য করা হয়। তবে আমাদের পক্ষের লোকজন কম ছিলো। বিয়ের পর থেকে আমাদের বাসায় তারা কিছুদিন ছিল। এখন আদালতে মামলা চলমান। আদালতের বিচারে যাহা হবার তাই হবে। আমিতো আর ছেলের প্রকৃত অভিভাবক না। বাপ জীবিত আছে তিনি যাহা করেন। 


এ ঘটনার বিষয়টি জানার জন্য মহিদের পিতা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আবু সাঈদ এর মুঠোফোনে ব্যবহৃত ০১৭৫৪-৬৫০৬৫০ নম্বরে গত ১৫ ফেব্রুয়ারী (মঙ্গলবার) দুপুর ১:৪২ মিনিটে ১বার ১.৪৩ আরো একবার, পরের দিন বুধবার সকালে ৮:০২ মিনিটে ফোন দিলেও ফোন কল রিসিভ করেননি তিনি। এমনকি ওইদিন চৌগাছায় তার কর্মস্থলে গিয়ে ২:৩৬ মিনিটে আবারও ফোন দিলেও রিসিভ করেননি তিনি, শুধুই তাই নয়, চৌগাছায় তার কর্মস্থলেও গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে ৪:০৯ মিনিটে পরপর দু'বার কল করলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়, শুক্রবার সকাল ৯:৫৫ মিনিটে ও ৯:৫৬ মিনিটে কল করলেও ফোন রিসিভ হয়নি। এরপর দুপুর ২:০৪ মিনিটে এবং বিকালে ৪:৩৩ মিনিট ও ৪:৫৬ মিনিটে ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরিশেষে ১৮ ফেব্রুয়ারী (শনিবার) দুপুর ১২:৩৯ ও ১২:৪৩ মিনিটে কল করেও ফোন নম্বর বন্ধ থাকার কারণে তার বক্তব্য দেওয়া সম্ভব হয়নি।


আরও খবর



পবিপ্রবিতে পাবলিক লেকচার অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Monday ৩০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
মোঃ জাহিদুল ইসলাম (দুমকি উপজেলা প্রতিনিধি)

Image


 প্রতিনিধি, দুমকি (পটুয়াখালী):  পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় "পরিবর্তিত খাদ্য পরিস্থিতি, শিক্ষার মান, ডিজিটাল প্রযুক্তি ও বিসিএস আমরা কোন পথে" শিরোনামে পাবলিক লেকচার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

  সোমবার বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি কনফারেন্স কক্ষে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডঃ স্বদেশ চন্দ্র সামন্তের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, এমেরিটাস মেমোরি  প্রফেসর ডঃ এম এ সাত্তার মন্ডল, সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ময়মনসিংহ ও সাবেক সদস্য পরিকল্পনা কমিশন বাংলাদেশ। 

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ডঃ আব্দুস সত্তার টিম লিডার ইকোফিস প্রকল্প, ওয়ার্ল্ডফিশ বাংলাদেশ ও ডঃ ওয়ায়েস কবির, সাবেক চেয়ারম্যান বাংলাদেশ এগ্রিকালচার রিসার্চ কাউন্সিল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, বিএএম অনুষদের প্রফেসর বদিউজ্জামান। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

বার্তা প্রেরক

মোঃ জাহিদুল ইসলাম

দুমকি, পটুয়াখালী।

তারিখ - ৩০/০৫/২০২২ইং


আরও খবর



নিয়ামতপুরে আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের গরম বাতাসে ধান চিটা হওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:Sunday ২৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ২৩ June ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
মোঃ সিরাজুল ইসলাম নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি -১

Image



  নিয়ামতপুর(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের গরম বাতাসের কারণে বোরো ধান চিটা হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শাহিন আলম ও আলাউদ্দিন নয়, নিয়ামতপুর উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের উপরকুড়া শালবাড়ী গ্রামের অনেক কৃষকের স্বপ্নই নষ্ট হলো গরম বাতাসের কারণে। প্রায় ১৪ বিঘা জমিতে ওই গরম বাতাসের বোরো ধান চিটা হয়েছে। উপজেলার হাজিননগর ইউনিয়নের উপরকুড়া শালবাড়ী এলাকায় অবস্থিত আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের গরম বাতাসের কারণে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে দাবী কৃষকদের।


সরেজমিনে দেখা যায়, আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের আশেপাশের, অনেক জমির ধান অনেকটা সাদা রং ধারণ করেছে৷ হঠাৎ উঠতি ফসলের এ অবস্থায় কৃষকেরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন৷ আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের কারণে ক্ষতি হয়েছে কিনা জানতে চাইলে আমান গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান আনোয়ারা পোল্ট্রি এন্ড হ্যাচারীর সহকারী ম্যানেজার মতিউল হাসান বলেন, যে কৃষক অভিযোগ করেছে, এটা উদ্দেশ্যপ্রণীত বা ভিত্তিহীন। এটা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ক্ষতি হয়েছে বা গরম বাতাসের কারণে হয়ে থাকতে পারে। তবে আমার মনে হয় তাদের অভিযোগটি উদ্দেশ্যপ্রণীত বা ভিন্নহীন।



ভুক্তভোগী কৃষক শাহিন আলম ও আলাউদ্দিন  জানান,ধার দেনা করে জমিতে ধান চাষ করেছি। আশা ছিল, এই ফসল থেকেই কেটে যাবে সারা বছর। কিন্তু আনোয়ারা পোল্ট্রি ফার্মের গরম বাতাসে সেই ধান চিটা হয়ে গিয়েছে। আমাদের ১৪ বিঘা আবাদ গরম বাতাসের কারণে ধান চিটা হয়েছে। এছাড়া সহ প্রায় কয়েক জন কৃষক এই ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। তারা আরোও জানান, শেষ সম্বলটুকু দিয়ে আবাদ করে এভাবে তীরে এসে তরি ডোবায় দিশেহারা হয়ে পড়েছি৷ আবার বাতাসের কারণে আশেপাশে পরিবেশে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি হচ্ছে।


উপজেলা কৃষি অফিসার আমীর আব্দুল্লাহ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমার দৃষ্টি গোচরে আসে নাই। মাঠে ধান থাকা অবস্থায় অভিযোগ পেলে বিষয়টি নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে কি কারণে ক্ষতি হয়েছে তা জানা যেত। যতি ধান ক্ষেতে গরম বাতাসে নিয়মিত প্রবাহিত হয়ে থাকে, তাহলে ক্ষেতে ধান ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। অত্র এলাকার হাজিনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।


আরও খবর



পবিপ্রবিতে বরিশাল বিভাগীয় রোভার মেট ওয়ার্কশপে’র উদ্বোধন

প্রকাশিত:Thursday ০২ June 2০২2 | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
মোঃ জাহিদুল ইসলাম (দুমকি উপজেলা প্রতিনিধি)

Image


মোঃ জাহিদুল ইসলাম, দুমকি (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ০৪ (চার) দিনব্যাপী বরিশাল বিভাগীয় রোভার মেট ওয়ার্কশপ এর আয়োজন করা হয়েছে।

২ জুন (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদ সংলগ্ন কনফারেন্স কক্ষে ওয়ার্কশপ ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. আহমেদ পারভেজ এর সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম। কোর্স কো-অর্ডিনেটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর এ কে এম ফখরুজ্জামান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন শারিরিক শিক্ষা বিভাগের উপ-পরিচালক মুহাম্মদ আবু হানিফ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, শিক্ষকবৃন্দ, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন জেলার প্রায় ৫০ জন রোভার ওয়ার্কশপে অংশগ্রহন করেন।#


আরও খবর



রাজারহাটে পরিত্যক্ত অবস্থায় গুলি-ম্যাগাজিন উদ্ধার

প্রকাশিত:Monday ৩০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৮৩জন দেখেছেন
মোঃ হামিদুল ইসলাম কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি

Image



     মোঃহামিদুল ইসলাম

 কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনধি


 

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় রাস্তার উপর থেকে পুলিশ পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯ রাউন্ড গুলি, একটি  ম্যাগাজিন ও চার্জার গার্ড উদ্ধার করেছে । 


রবিবার ,২৯ মে রাত প্রায় ১২টার দিকে রাজারহাট-তিস্তা সড়কের হরিচরণ এলাকা থেকে এসব  উদ্ধার করা হয়।


পুলিশ জানা যায়, রবিবার রাত ১২টার দিকে রাজারহাট থানার টহল দলের পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শরিফুল ইসলাম, উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম ও এএসআই রাফিউল আমিন রাজারহাট-তিস্তা সড়ক অদিতা সুধী কানন ফিলিং স্টেশন  সংলগ্ন সড়কে ৯ রাউন্ড থ্রি নট থ্রি রাইফেলের গুলি,একটি ম্যাগাজিন,একটি চার্জার গার্ড, পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।


রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজু সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রোববার রাতে টহল দলের সদস্যরা রাস্তার উপর  পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯ রাউন্ড গুলি,একটি  ম্যাগাজিন ও চার্জার গার্ড উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে,ধারনা করা হচ্ছে কেউ না, কেউ এসব নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় ফেলে গেছে।


আরও খবর



আপনার এলাকার ঘটে যাওয়া সংবাদ পাঠাতে পারেন এই মেইলে channel3bangla@gmail.com

প্রকাশিত:Monday ৩০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
চ্যানেল থ্রি বাংলা অনলাইন ডেক্স

Image

আপনার এলাকার ঘটে যাওয়া সংবাদ পাঠাতে পারেন এই মেইলে channel3bangla.com


আরও খবর